The Bangladesh Today | Uniting people everyday

ঢাকা মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই ২০২২

ফিক্সিংয়ের দায়ে নিষিদ্ধ স্পেনের ছয় টেনিস খেলোয়াড়

ফিক্সিংয়ের দায়ে নিষিদ্ধ স্পেনের ছয় টেনিস খেলোয়াড়
ছবি: সংগৃহীত

ম্যাচ ফিক্সিংয়ে দোষী প্রমাণিত হওয়ায় স্পেনের ছয় টেনিস খেলোয়াড়কে নিষিদ্ধ করেছে টেনিস ইন্টেগ্রিটি এজেন্সি। তাদের কারাদণ্ডের শাস্তিও শোনানো হয়েছে। জানা গেছে, স্পেনের একটি আদালতে ছয় খেলোয়াড়ের বিরুদ্ধে অপরাধের প্রমাণ পাওয়া গেছে। ফলে তাদের ৭ থেকে ২২ বছর পর্যন্ত কারাবাসের শাস্তি হতে পারে।

ছয় খেলোয়াড়ের একসাথে ফিক্সিংয়ের সাথে জড়িত হওয়া টেনিস ইতিহাসের প্রথমবারের মতো ঘটলো। আন্তর্জাতিক টেনিস ইন্টেগ্রিটি এজেন্সি এক বিবৃতিতে জানায়, “এই রকম টেনিসে এই রকম পূর্ব পরিকল্পিত ফিক্সিংয়ের ঘটনা এই প্রথম ধরা পড়লো।”

যে ছয় টেনিস তারকা ফিক্সিংয়ের দায়ে নিষিদ্ধ হয়েছেন। তারা কেউই বড় কোনো তারকা খেলোয়াড় নন। তাদেরকে ৭ থেকে ২২ বছর পর্যন্ত টেনিস থেকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এছাড়াও আদালত সবাইকে ৪৫০ ইউরো আর্থিক জরিমানা করেছে।

শুধু আদালত নয়, আন্তর্জাতিক টেনিস ফেডারেশনও তাদেরকে আর্থিক জরিমানা করেছে। সবচেয়ে জরিমানা দিবেন ফরনেল মেস্ট্রেস। তাকে জরিমানা করা হয়েছে আড়াই লাখ ইউরো। এছাড়া মার্সে ভিড্রিকে জরিমানা করা হয়েছে ১৫ হাজার ইউরো। বাকি চার খেলোয়াড়কে সম্মিলিতভাবে সাড়ে চার লাখ ইউরো জরিমানা করা হয়েছে।

টেনিস থেকে নিষিদ্ধ হওয়ায় এই খেলোয়াড়রা আন্তর্জাতিক কিংবা ঘরোয়া কোনো টুর্নামেন্টে অংশ নিতে পারবেন না। এমনকি পেশাদার কোনো টেনিস খেলোয়াড়ের সাথে কোচ হিসেবেও কাজ করতে পারবেন না বলেও জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

নিষিদ্ধ হওয়া ছয় জনের মধ্যে ফরনেল মেস্ট্রেস এবং মার্সে ভিদ্রি র‍্যাঙ্কিংভুক্ত টেনিস খেলোয়াড় ছিলেন। ২০০৭ সালে মেস্ট্রেস ক্যারিয়ার সেরা ২৩৬তম স্থানে এসেছিলেন। বাকি চারজনের কেউই টেনিস র‍্যাঙ্কিংয়ে ছিলেন না।