The Bangladesh Today | Uniting people everyday

ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৮ অগাস্ট ২০২২

সত্যি কি ফিলিস্তিনি মিসাইলে পাঁচ মিনিটে ধ্বংস হয়ে যেতে পারে ইসরায়েল?

সত্যি কি ফিলিস্তিনি মিসাইলে পাঁচ মিনিটে ধ্বংস হয়ে যেতে পারে ইসরায়েল?
সংগৃহীত

ফিলিস্তিনের মিসাইল হামলায় মাত্র পাঁচ মিনিটে ইসরায়েল ধ্বংস হয়ে যেতে পারে বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছে ফিলিস্তিনের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের রাজনৈতিক শাখার প্রধান ইসমাইল হানিয়া।

তিনি বলেছেন, ইসরায়েলের সঙ্গে যদি প্রতিরোধ আন্দোলনের নতুন করে সংঘাত শুরু হয় তাহলে ফিলিস্তিনিদের ক্ষেপণাস্ত্রের আঘাতে কয়েক মিনিটের মধ্যে ইসরায়েলের অস্তিত্ব ধ্বংস হয়ে যাবে। 

রবিবার লেবাননের রাজধানী বৈরুতে এক সমাবেশে দেওয়া বক্তৃতায় একথা বলেন ইসমাইল হানিয়া। এসময় ইসরায়েলের সঙ্গে কয়েকটি আরব দেশের সম্পর্ক স্বাভাবিকীকরণের কঠোর নিন্দাও করেন তিনি।
হামাস নেতা বলেন, “৭৪ বছর আগে থেকেই লেবানন সম্পূর্ণভাবে ফিলিস্তিনিদের প্রতি সহানুভূতিশীল ছিল। এখন আমরা আল-আকসা মসজিদের মুক্তি আসন্ন মনে করি কারণ আমরা এখন বিজয় এবং উন্নয়নের যুগে অবস্থান করছি। এই উন্নয়ন এবং বিজয়ের বিষয়টি আমাদের জনগণ নির্ধারণ করবে।”

হামাস নেতা বলেন, গাজা উপত্যকা ইসরায়েলের জল, স্থল এবং আকাশ পথের অবরোধের আওতায় রয়েছে। কিন্তু তারপরও অপারেশন আল-কুদস সোর্ড নামে ইসরায়েলের বিরুদ্ধে সামরিক অভিযান পরিচালনা করেছে গাজাবাসী।

যার অর্থ হচ্ছে, ইসরাইয়ের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য প্রস্তুত হচ্ছে গাজা। অপারেশন আল-কুদস সোর্ডে হামাসের সামরিক শাখা আল-কাসসাম ব্রিগেড ব্যাপকভাবে ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার করে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।

হামাস নেতা বলেন, ভবিষ্যতে ইসরায়েলের বিরুদ্ধে যুদ্ধে ফিলিস্তিনের ১৫০টি ক্ষেপণাস্ত্র ইসরায়েলকে পাঁচ মিনিটের কম সময়ের মধ্যে ধ্বংস করে ফেলবে। 

তিনি সুস্পষ্ট করে বলেন, দখলদার ইসরায়েল সরকার এবং অবৈধ ইহুদি বসতি স্থাপনকারীদের আল-আকসা ও আল-কুদসে কোনও ঠাঁই নেই।

তবে ফিলিস্তিনের কাছে কি ধরনের মিসাইল রয়েছে, সে সম্পর্কে কিছুই বলেননি ইসমাইল হানিয়া। সেই সঙ্গে এসব মিসাইল আদৌ ইসরায়েলে আঘাত হানতে পারবে কিনা, কিংবা ইসরায়েলে প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ভেদ করতে পারবে কিনা, সে সম্পর্কে কোনও সংবাদ মাধ্যমেই তেমন কোনও ইঙ্গিতও পাওয়া যায়নি।

সূত্র: তাসনিম নিউজ, প্রেসটিভি