The Bangladesh Today | Uniting people everyday

ঢাকা সোমবার, ০৮ অগাস্ট ২০২২

লোডশেডিংয়ের ভোগান্তি থাকবে আরও ২ মাস: প্রতিমন্ত্রী

লোডশেডিংয়ের ভোগান্তি থাকবে আরও ২ মাস: প্রতিমন্ত্রী
বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ। ফাইল ছবি

জ্বালানি সংকটের কারণে বিদ্যুৎ সরবরাহে যে ঘাটতি দেখা দিয়েছে তা আগামী সেপ্টেম্বরের আগে কাটছে না। বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, ‘লোডশেডিং কমিয়ে আনার চেষ্টা করা হচ্ছে, হয়তো সেপ্টেম্বর থেকে পরিস্থিতি উন্নতি হবে।’

শুক্রবার (৫ আগস্ট) বারিধারার নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

তিনি বলেন, রাজধানীতে লোডশেডিংয়ের সময় মানা যাচ্ছে তবে ঢাকার বাইরে মানা যাচ্ছে না। আজ শুক্রবার (৫ আগস্ট) সকালে রাজধানীর বারিধারায় নিজ বাসায় সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপচারিতায় নসরুল হামিদ লোডশেডিং পরিস্থিতি নিয়েও কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, কয়লা উত্তোলন নিয়ে নতুন করে ভাবছে না সরকার। পরিবেশ-প্রতিবেশের প্রতি খেয়াল করতে হবে। সমালোচকদের সব কথা শুনলে তো হবে না। হাজার পরামর্শ আসছে, কিন্তু সব শোনা যাবে না। ইউক্রেন যুদ্ধের আগে অবস্থা এমন ছিল না; এখন সব বদলে গেছে। কয়লা খনি নিয়ে কঠিন কিছু বিষয় সামনে এসেছে, সেগুলো সমাধান না করে নতুন করে কয়লা উত্তোলন সম্ভব নয়।

তিনি বলেন, ব্যবসায়ীরা চাইলেও রাত ৮টার পর দোকান খোলা রাখার অনুমতি দেয়া সম্ভব হবে না বলেও জানান তিনি। নসরুল হামিদ বলেন, অনেকের কাছ থেকে অফার পাচ্ছি জ্বালানি তেল কেনার বিষয়ে। তবে এখনো এ নিয়ে উপসংহারে আসিনি। এক মাস গেলে সব তথ্য বিশ্লেষণ করে বুঝতে পারব- কী হারে জ্বালানি সাশ্রয় হলো।

এসময় তিনি বলেন, বিশ্ববাজারে তেলের দাম কমেছে কিন্তু ততোটা কমেনি। তেলের বাজারে সরকার বহুদিন ধরে ভর্তুকি দিচ্ছে। সরকারি কর্মকর্তারা অনেক বেশি গাড়ি ব্যবহার করেন। সরকারি কাজে শুধু সরকারি গাড়ি ব্যবহার হবে। যারা ব্যক্তিগত কাজে সরকারি গাড়ি ব্যবহার করেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার কথাও জানান প্রতিমন্ত্রী।