The Bangladesh Today | Uniting people everyday

ঢাকা শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২

সবুজ-চোখের সেই আফগান নারীকে ইতালিতে আশ্রয় দেওয়া হয়েছে

সবুজ-চোখের সেই আফগান নারীকে ইতালিতে আশ্রয় দেওয়া হয়েছে

সবুজ-চোখের সেই আফগান নারীকে ইতালিতে আশ্রয় দেওয়া হয়েছে। ১৯৮৫ সালে ন্যাশনাল জিওগ্রাফিতে তার ছবি দেশটির যুদ্ধের প্রতীক হয়ে ওঠেছিল। তাকে একটি নিরাপদ স্বর্গ উপহার দেওয়ার খবর বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) ইতালির প্রধানমন্ত্রী মারিও দ্রাঘির অফিস থেকে দেওয়া হয়েছে।-খবর গার্ডিয়ান ও রয়টার্সের

মধ্য-আগস্টে তালেবান সরকার ক্ষমতায় আসার পর আফগানিস্তান ছাড়তে তার সহায়তার চেয়ে অনুরোধে সাড়া দিয়েছে ইতালি সরকার। আফগান নাগরিকদের সরিয়ে আনা ও একীভূত করার বৃহত্তর পরিকল্পনা থেকে শরবত গুলকে ইতালিতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

মার্কিন যুদ্ধ বিষয়ক আলোকচিত্রী স্টিভ মাকারির ক্যামেরায় ধরা পড়েছিল তখনকার আফগান কিশোরী শরবত গুল। তিনি তখন পাকিস্তান-আফগান সীমান্তের একটি শরণার্থী শিবিরে থাকতেন।

ওড়নার ফাঁক দিয়ে উঁকি দেওয়ার তার তীক্ষ্ণ সবুজ চোখের চাহনিতে নৃশংসতা ও যন্ত্রণার মিশেল ছিল। বলা হয়, যুদ্ধবিধ্বস্ত একটি দেশের প্রতিচ্ছবি হয়ে ওঠেছে তার ওই ছবি।

ন্যাশনাল জিওগ্রাফিকে এ ছবি প্রকাশের পর আন্তর্জাতিকভাবে তার খ্যাতি ছড়িয়ে পড়ে। কিন্তু তার পরিচয় জানা গেছে ২০০২ সালে। তখন মরকারি ওই অঞ্চলে গিয়ে তাকে খুঁজে বের করেন।

ন্যাশনাল জিওগ্রাফিক জানিয়েছিল, শরবত গুলের পরিচয় নির্ধারণে এফবিআইয়ের একজন বিশ্লেষক ও ফরেনসিক বিশেষজ্ঞ তার কনীনিকা শনাক্ত করেছেন। এর মধ্যে জাতীয় পরিচয়পত্র জালিয়াতি করার দায়ে ২০১৬ সালে পাকিস্তানে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছিল।

পরে তিনি আফগানিস্তানে ফিরে গেলে দেশটির তখনকার প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনি তাকে স্বাগত জানান। তার নিরাপত্তা ও মর্যাদাপূর্ণ জীবনেরও নিশ্চয়তা দিয়েছিলেন তিনি।