The Bangladesh Today | Uniting people everyday

ঢাকা মঙ্গলবার, ২৮ জুন ২০২২

ভূমিকম্প : পরিবারের ১৯ সদস্যকে হারালেন আফগান নারী

ভূমিকম্প : পরিবারের ১৯ সদস্যকে হারালেন আফগান নারী
ফাইল-ছবি

ভূমিকম্পে বিপর্যস্ত আফগানিস্তানে চলছে নিখোঁজদের সন্ধান। ধ্বংসস্তূপ সরিয়ে বের করে আনা হচ্ছে একের পর এক মরদেহ। বুধবার আঘাত হানা ভূমিকম্পে দেশটিতে প্রাণ গেছে ১ হাজারের বেশি মানুষের। 

এখনও নিখোঁজ রয়েছে দেড় হাজারের বেশি মানুষ। প্রাণহানি আরও বাড়বে বলে আশঙ্কা কর্তৃপক্ষের। প্রত্যন্ত গ্রাম ও দুর্গম পাহাড়ি এলাকাগুলোয় এখনও শুরু হয়নি উদ্ধার তৎপরতা।

এক ঘরে সাতজন, অন্য ঘরে পাঁচজন, আরেকটিতে চারজন, আরেকটি ঘরে তিনজন। তারা কেউই আর বেঁচে নেই।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসিকে এভাবে নিজের স্বজন হারানোর কথাগুলো বলছিলেন আফগানিস্তানে ভয়াবহ ভূমিকম্পের পর বেঁচে যাওয়া এক নারী। বর্তমানে তিনি পাকতিকা প্রদেশের একটি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। বিবিসি জানিয়েছে, ওই নারীর পরিবারের সব সদস্যের মৃত্যু হয়েছে।

শাবির নামে বেঁচে যাওয়া আরেকজন বলেন, একটা গর্জন হলো।  পরে আমার বিছানা কাঁপতে লাগল।  

আফগানিস্তানে ভূমিকম্পের পরদিন দেশটির চিকিৎসকেরা দাবি করেছেন, এ দুর্যোগে অনেক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। এদিকে ভূমিকম্পে বিধ্বস্ত অনেক প্রত্যন্ত এলাকায় এখনও পৌঁছাতে পারেনি আফগান সরকারের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের কর্মীদল ও সেনাসদস্যরা।  

এমন দুর্যোগে বিদেশি সহায়তা চেয়েছে আফগানিস্তান।  তালেবানের মুখপাত্র বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেন, আমরা ভূমিকম্পে বিধ্বস্ত অনেক এলাকায় পৌঁছাতে পারছি না।  

এ ভূমিকম্পে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে আফগানিস্তানের পাকতিকা প্রদেশ।  সেখানকার মানুষকে ত্রাণ দেওয়ার কাজ শুরু করেছে জাতিসংঘ।  

ভূমিকম্পের পর বেঁচে যাওয়া ও উদ্ধারকর্মীরা জানিয়েছেন, কয়েকটি গ্রাম সম্পূর্ণরূপে ধ্বংস হয়ে গেছে। সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে পাকতিকার গায়ান ও বারমাল জেলা।  

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র আফগানিস্তান ছাড়ার পর গত আগস্টে তালেবান দেশটির ক্ষমতায় যায়। এক সময়ের বিদ্রোহী গোষ্ঠীটি ক্ষমতা দখলের পর থেকে অর্থনৈতিক সংকটে রয়েছে আফগানিস্তান। আফগানিস্তানের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে রেখেছে বিভিন্ন দেশ। এরমধ্যেই এই ভয়াবহ ভূমিকম্পের ঘটনা ঘটল।  

সূত্র: বিবিসি