The Bangladesh Today | Uniting people everyday

ঢাকা সোমবার, ০৮ অগাস্ট ২০২২

লুঙ্গি পরেই স্টার সিনেপ্লেক্সে সিনেমা দেখলেন সেই বৃদ্ধ

লুঙ্গি পরেই স্টার সিনেপ্লেক্সে সিনেমা দেখলেন সেই বৃদ্ধ
ছবি: সংগৃহীত

লুঙ্গি পরে সিনেমা হলে যাওয়ায় এক বৃদ্ধের কাছে টিকিট বিক্রি করেনি মিরপুরের সনি স্কয়ার সিনেপ্লেক্স কর্তৃপক্ষ। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সেই সিনেমা হলে বসে লুঙ্গি পরেই সপরিবারে রায়হান রাফি পরিচালিত ‘পরাণ’ সিনেমাটি দেখলেন সেই বৃদ্ধ। সঙ্গে ছিলেন এই সিনেমার প্রধান তিন অভিনয়শিল্পী শরীফুল ইসলাম রাজ, ইয়াশ রোহান এবং বিদ্যা সিনহা সাহা মিম।

জানা গেছে, ওই বৃদ্ধের নাম সামান আলী সরকার। বুধবার সন্ধ্যায় তিনি গিয়েছিলেন মিরপুর সনি স্কয়ার সিনেপ্লেক্সে ‘পরাণ’ সিনেমাটি দেখতে। কিন্তু লুঙ্গি পরে যাওয়ায় তাকে টিকিট দেওয়া হয়নি। ষাটোর্ধ বৃদ্ধ সামান আলীর ভিডিওসহ এই ঘটনা সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়ে যায়। শুরু হয় সমালোচনা। অনেকে লুঙ্গি পরে ছবি পোস্ট করে এ ঘটনার প্রতিবাদ জানান।

ঘটনাটি চোখ এড়ায়নি ‘পরাণ’ সিনেমার দুই প্রধান চরিত্র শরীফুল রাজ এবং বিদ্যা সিনহা মিমেরও। তারা নিজেদের ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে ওই বৃদ্ধের সন্ধান জানতে চান। এও জানান, খুঁজে পেলে ওই বৃদ্ধের সঙ্গে বসে ‘পরাণ’ সিনেমাটি দেখবেন তারা। এদিকে, ফেসবুকে দুঃখপ্রকাশ করে বৃদ্ধ সামান আলীকে সপরিবারে ‘পরাণ’ দেখার আমন্ত্রণ জানায় সনি স্কয়ার সিনেপ্লেক্সও।

বৃহস্পতিবার রাতে এক ফেসবুক স্ট্যাটাসে জানিয়েছেন স্টার সিনেপ্লেক্সের মিডিয়া মার্কেটিং বিভাগের সিনিয়র ম্যানেজার মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ। 

 

তিনি বলেন, ‘আমরা সামান আলী ও তার পুরো পরিবারকে সিনেমা দেখার আমন্ত্রণ জানিয়েছি। তিনি পরিবারসহ সিনেপ্লেক্সে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার শোতে ‌‘পরাণ’ দেখেছেন। আমরা সামান আলী ও তার পরিবারকে খুশি করতে পেরে আনন্দিত।’

এর আগে, বুধবার (৩ আগস্ট) রাজধানীর মিরপুরের সনি স্কয়ারে স্টার সিনেপ্লেক্সর শাখায় লুঙ্গি পরে ‘পরাণ’ সিনেমা দেখতে যাওয়ায় সামান আলীকে টিকিট না দেওয়ার অভিযোগে সরগম হয়ে উঠে সামাজিক মাধ্যম। ভাইরাল হওয়া একটি ভিডিওতে দেখা যায়, ওই প্রবীণ দাবি করেন, লুঙ্গি পরেছেন বলে তার কাছে সনি স্কয়ারের কাউন্টার থেকে টিকিট বিক্রি করা হয়নি। সেজন্য সিনেমা না দেখেই তাকে বাসায় ফিরে যেতে হচ্ছে।  

বাংলা চলচ্চিত্র নামে চলচ্চিত্রবিষয়ক একটি গ্রুপে সেই বৃদ্ধের ছবি ও ভিডিও পোস্ট করে ঘটনা তুলে এনেছেন কাওসার আহমেদ নামের এক প্রত্যক্ষদর্শী। এরপর থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রতিবাদের ঝড় ওঠে।